Translate

Wednesday, January 22, 2020

৭১ তম প্রজাতন্ত্র দিবস। এমন কিছু কথা যা হয়ত আপনি জানেন না

প্রজাতন্ত্র দিবস আসলে একটি সার্বভৌমত্বের -উৎসব
আগামী ২৬ সে জানুয়ারী ২০২০ ভারতের ৭১ তম প্রজাতন্ত্র দিবস । 





Image credit Google


প্রজাতন্ত্র দিবস ভারতের তিনটি জাতীয় উৎসবের মধ্যে একটি। যে দিনটি আমাদের সংবিধান কার্যকর হয়েছে সেই দিনটির স্মরণে উদযাপিত হয়। এই দিনটিতে, আমরা ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সামরিক সক্ষমতার মহিমা দেখার জন্য প্রস্তুত থাকি। প্রতি বছর এই উৎসবটি অত্যন্ত উদ্দীপনা এবং উৎসাহের সাথে উদযাপিত হয়।

কেন ? তা মানে রেখেছি কজন ?


আজকের সময়ে, আমরা কেবল কোথায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকব, কোন ধরণের প্যারেড অনুষ্ঠিত হবে, কোন বিদ্যালয়টি অনুষ্ঠান করার জন্য নির্বাচিত হবে, এই বছরের কুচকাওয়াজে জাতীয় সাহসী পুরষ্কার প্রাপক এই সমস্ত চিন্তা নিয়েই অস্থির থাকি।আর এত কিছুর মাঝে মনে হয়ত আমরা এই উৎসবের আসল মর্মটাই ভুলে গিয়েছি ।আমরা প্রথম প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাকৃত গৌরবকে ভুলে গিয়েছি

২৬ জানুয়ারী, ১৯৫০. আপনি যদি প্রথম প্রজাতন্ত্র দিবসের কিছু আকর্ষণীয় তথ্য এবং এর সাথে সম্পর্কিত ইতিহাস জানতে চান তবে নীচে পড়ুন:
ইতিহাস - ২৬ জানুয়ারী, ১৯৫০



একটি জনপ্রিয় ব্রিটিশ পত্রিকা শিরোনাম লেখে পড়ে “আজ ভারত গণতান্ত্রিক হয়ে উঠল”। তারিখটি ছিল ২৬ শে জানুয়ারি, ১৯৫০, ভারত স্বাধীনতা অর্জনের প্রায় আড়াই বছর পরে। ভারত কেন এই সময়টি প্রজাতন্ত্র হওয়ার জন্য অপেক্ষা করেছিল ?


স্বাধীনতা সংগ্রামের ফলশ্রুতি

১৬০০-এর দশকে ভারতের সাথে ব্রিটিশ বাণিজ্য শুরু হয়েছিল তবে ১৭০০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি এদেশের বিস্তীর্ণ জমি দখল করেছিল এবং এটিই ছিল কোম্পানির শাসনের সূচনা। ১৮৫৮ সালে ভারত শাসন আইন পাস হওয়ার সাথে সাথে ব্রিটিশ ক্রাউন ভারতীয় উপমহাদেশে প্রশাসনের প্রত্যক্ষ নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে এবং এইভাবে ব্রিটিশ রাজ ভারতের প্রত্যক্ষ সম্পর্কে আসে। বহু দশক ধরে ভারতীয়দের এই ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্দে প্রতিরোধ বিক্ষিপ্ত এবং সংযোগ-বিচ্ছিন্ন ছিল। যদিও ১৯০০ এর দশকের গোড়ার দিকে, ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম অনেক বেশি গতি অর্জন করতে শুরু করে। মহাত্মা গান্ধী ও অন্যান্য জাতীয় নেতাদের উত্থান এবং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের ক্রমবর্ধমান শক্তি বৃদ্ধি ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটিশদের প্রচুর ক্ষয়ক্ষতিতে এটা স্পষ্ট হয়ে উঠছিল যে শীঘ্রই ভারতকে স্ব-শাসন দেওয়া হবে। 

১৯৪৭ এ স্বাধীন হয়ে প্রজাতন্ত্র হতে এতদিন লাগলো কেন ?

১৯৪৭ সালের আগস্ট মাসে , ব্রিটিশ ভারত ভেঙ্গে ভারত এবং পাকিস্তান নামের দুটি স্বাধীন দেশের জন্ম হয় । কিন্তু স্বাধীন হলেও ভারত তখনও ইংল্যান্ডের রাজা ষষ্ঠ জর্জ এর নিয়ন্ত্রণে একটি সংবিধানিক রাজতন্ত্র হিসেবে থেকে যায় আর লর্ড মাউন্টব্যাটেন ভারতে ব্রিটিশ গভর্নর জেনারেল হিসাবে থাকেন । এরই মধ্যে স্বাধীন ভারতের গণপরিষদ গঠিত হয় (১৯৪৭ সালে) এবং এর সদস্যগণ নির্বাচিত হন। তাদের সামনে তখন ভারতের গণপরিষদের হয়ে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজ ছিল - যে , যে দেশটি পরবর্তীকালে বিশ্বের সর্বাধিক জনবহুল গণতন্ত্রে পরিণত হবে তার সংবিধানের একটি খসড়া তৈরি করা। অনেক বিতর্ক, বিস্তারিত আলোচনা, এবং দূরদৃষ্টিসম্পন্ন দৃষ্টিভঙ্গির সাহায্যে সদস্যরা বিশ্বের দীর্ঘতম লিখিত সংবিধান প্রস্তুত করেন ডঃ বি আর আম্বেদকরের নেতৃত্বে। বর্তমানে ভারতের সংবিধানের ২৫ টি পার্ট বা অংশ এবং১২ টি শিডিউল বা তফসিল ও ৪৪৮ টি আর্টিকেল বা নিবন্ধ রয়েছে। এখনও পর্যন্ত ভারতের সংবিধানে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ১১৫ টি সংশোধন করা হয়েছে ।


Image credit Google




ভারতের সংবিধানটি ২৬ শে নভেম্বর, ১৯৪৯ সালে গণপরিষদ গণপরিষদে গৃহীত হয়েছিল এবং ২৬ শে জানুয়ারী, ১৯৫০ সালে দেশজুড়ে কার্যকর হয়েছিল।সেদিন থেকে ভারত একটি সার্বভৌম প্রজাতন্ত্রে পরিণত হয়।

কিছু আকর্ষণীয় তথ্য

  • ২৬ জানুয়ারী, ১৯৫০ সকাল ১০ টা ১৮ মিনিটে এ ভারত প্রজাতন্ত্র হয়ে উঠল।এর কয়েক মিনিট পরে, সকাল ১০ টা ২৪ মিনিটে ড: রাজেন্দ্র প্রসাদ ভারতের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ গ্রহণ করেছিলেন।
  • ভারতের প্রথম সংবিধান হিন্দি এবং ইংরেজিতে হস্তাক্ষরে ছিল।
  • এটিতে ১৯৫০ সালের ২৪ শে জানুয়ারি গণপরিষদের সদস্যরা স্বাক্ষর করেছিলেন।
  • এই অনুলিপিগুলি এখনও সংসদের লাইব্রেরিতে সংরক্ষিত রয়েছে এবং এটি স্বাধীন ভারতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নিদর্শন।
  • ১৯৫০ থেকে ১৯৫৪ সালের মধ্যে, প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের জন্য ভারতের কোনও স্থির জায়গা ছিল না। প্রথমদিকে এটি লাল কেল্লায় , তারপরে জাতীয় স্টেডিয়ামে, তারপরে কিংসওয়ে ক্যাম্পে এবং পরে রামলীলা মাঠে অনুষ্ঠিত হত । অবশেষে 1955 সালে, রাজপথকে স্থায়ী ভেন্যু হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিল।
  • এটি ছিল প্রথম প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ।





Image credit Google


১৯৫০ সালের ২৪ শে জানুয়ারি গণপরিষদের সদস্যরা জাতীয় সংগীত - জন গণ মন গ্রহণ করেছিলেন। এটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ভাষায় লিখেছিলেন এবং পরে হিন্দিতে অনুবাদ করেছিলেন।

প্রজাতন্ত্র দিবস অনুষ্ঠান : কি কি হয় :-

  • প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে ভারতের রাষ্ট্রপতি জাতিকে সম্বোধন করেন এবং এই সম্বোধন অত্যন্ত আগ্রহের সাথে সারা দেশ ব্যাপী প্রচারিত হয় ।
  • প্রজাতন্ত্র দিবস প্যারেডের আগে ভারতের রাষ্ট্রপতি জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং ২১ টি কামানের স্যালুট দিয়ে অভ্যর্থনা জানান।
  • ভারতীয় প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপন ২৬ শে জানুয়ারী থেকে ২৯ জানুয়ারী পুরো তিন দিন স্থায়ী হয়।
  • প্রজাতন্ত্র দিবস, একটি জাতীয় ছুটি।



No comments:

Post a Comment

Thank You .Please do not enter any spam link in the comment box.

Don't Miss It !

How to communicate with the YouTube team? How to email the Creator Support team from YouTube

  How to communicate with the YouTube team? How to email the Creator Support team from  YouTube Access your  YouTube  channel . Tap your pro...