Translate

Wednesday, January 29, 2020

উৎকন্ঠায় সারা দেশ , ফাঁসি পিছানোর জন্য আবার একটি আবেদন - এবার অক্ষয় সিং

ছবি -অক্ষয় সিং-

Image credit Google

বিলম্বের নতুন কৌশল - অক্ষয় সিং এর কিউরেটিভ পিটিশন

আবার একটি আবেদন।এবার নির্ভয়া কাণ্ডের অন্যতম দোষী অক্ষয় সিং, আজ সুপ্রিম কোর্ট এ কিউরেটিভ পিটিশন জমা করল।
এর আগে সে সুপ্রিম কোর্ট এ মৃত্যু দণ্ডের রায় পুনঃ বিচারের আবেদন জানিয়েছিল।
সেই আবেদনে সে হিন্দু ধর্মের কিছু ধর্মীয় কাহিনী ও দিল্লীর দূষণের উল্লেখ করেছিল। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট তার সেই আবেদন অযৌক্তিক ও ভিত্তিহীন বলে খারিজ করে দেন। এবার সেই অক্ষয় সিং -ই নতুন করে কিউরেটিভ পিটিশন জমা করল। একই রকম ভাবে এর আগে মুকেশ সিং এবং বিনয় শর্মার কিউরেটিভ পিটিশন জমা করেছিল। সর্বোচ্চ আদালত ইতিমধ্যেই সেই আবেদনগুলি খারিজ করে দিয়েছেন।
নতুন করে অক্ষয় সিং কিউরেটিভ পিটিশন জমা করায় ১ লা ফেব্রুয়ারী সকাল ৬ টায় এই নৃশংস অপরাধীদের ফাঁসি হওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তার মেঘ জমতে শুরু করেছে।

Image credit Google

বিচার এর অলিন্দে অপরাধী নির্বিকার

এই চার অপরাধীর ফাঁসি প্রথমে ২২ শে জানুয়ারী হওয়ার রায় ছিল। কিন্তু মুকেশ সিং রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করে। রাষ্ট্রপতি সেই আবেদন খারিজ করে দিলেও তিহার জেলের ম্যানুয়াল অনুযায়ী আবেদন প্রত্যাখানের পর অপরাধীকে ১৪ দিনের সময় দেওয়া হয়। তাই ২২ সে ডিসেম্বর ফাঁসি রদ্ হয় ও দিল্ল্লী পাতিয়ালা কোর্ট নতুন মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন ও ১ লা ফেব্রুয়ারী সকাল ৬ টায় ফাঁসির দিন ও সময় ধার্য হয়। সেই অনুযায়ী তিহার জেল কর্তৃপক্ষ ফাঁসির প্রস্তুতি শুরু করেন। জেল কর্তৃপক্ষ ৪ যান আসামীকেই তাদের শেষ ইচ্ছা জানাতে বললেও তারা নিরব থাকে। বিভিন্ন সংবাদ সূত্রে জানা যায় যে যখনই তাদের সেলের বাইরে নিয়ে আসা হতো তখনই তারা ফাঁসি পিছিয়ে দেওয়ার বিভিন্ন কৌশল নিয়ে আলোচনা করতো। ফাঁসির আসামীদের যেরকম মানসিক পরিবর্তন হয় তা এদের মধ্যে দেখা যায় নি। তারা বেশ নির্বিকারে রয়েছে।

Image credit Google
ছবি- দোষীদের আইনজীবী এ পি সিং
অক্ষয় সিং এর কিউরেটিভ পিটিশন বিচারকরা খোলা কোর্ট এ শুনবেন না। এই আবেদনের শুনানি হবে বিচারপতির চেম্বার এ। বন্ধ দরজায়।

অক্ষয় সিং -আর কোন রাস্তা খোলা :-

অক্ষয় সিং এর কিউরেটিভ পিটিশন যদি বিচারকরা খারিজ করে দেন তাহলে সে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করতে পারবে।
দেশের মানুষের ক্ষোভ ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় আছড়ে পড়ছে। কারন অক্ষয় সিং যদি প্রাণভিক্ষার আবেদন জানায় এবং রাষ্ট্রপতি সেটা খারিজ করে দেন তাহলে আবার সে রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কোর্টের ডরাস্ট হবে না তো ? মুকেশ সিং রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে , রাষ্ট্রপতির বোধবুদ্ধি নিয়ে প্রশ্ন তুলে ইতিমধ্যেই সেই রাস্তা খুলে দিয়েছে। যে রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্তকেও চ্যালেঞ্জ করা যায়।

No comments:

Post a Comment

Thank You .Please do not enter any spam link in the comment box.

Don't Miss It !

CHILD CARE || MEMORY TIPS - How to use a trip to the playground to help your children strengthen their memory

How to use a trip to the playground to help your children strengthen their memory To remember things, you need to give them your full attent...